রবিবার, অক্টোবর ১৭, ২০২১

৬ শিক্ষার্থীর চুল কাটা সেই শিক্ষক আটক, হচ্ছে মামলা

আরও পড়ুন

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ছয় মাদরাসা শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগ ওঠা শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির মঞ্জুকে আটক করেছে পুলিশ।শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে তাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল।

পুলিশ জানায়, উপজেলার কাজীর দীঘিরপাড়ের বাড়ি থেকে মঞ্জুরুল কবিরকে আটক করা হয়। তার নামে একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

অন্যদিকে, শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় মঞ্জুরুল কবিরকে কাজীর দীঘিরপাড় আলিম মাদরাসা থেকে সাময়িক অব্যহতি দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠান সুপার মাওলানা বরাকাত উল্লাহ।

প্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর মাদরাসার বারান্দায় ছয় শিক্ষার্থীকে দাঁড় করিয়ে কাঁচি দিয়ে চুল কেটে দেন শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির। পরে শিক্ষার্থীরা লজ্জায় ক্লাস না করে বেরিয়ে যায়। কিন্তু শুক্রবার সকাল থেকে চুল কাটার ১ মিনিট ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটি ভাইরাল হলে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা।

মঞ্জুরুল কবির রায়পুর উপজেলার কাজীর দীঘিরপাড় আলিম মাদরাসার সহকারী শিক্ষক ও বামনী ইউনিয়ন জামায়াতের আমির।

এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর সিরাজগঞ্জ রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় দেশব্যাপী তোলপাড় হয়। অপমান সইতে না পেরে শিক্ষার্থী নাজমুল হোসেন তুহিন ছাত্রাবাসে গিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটির রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

সর্বশেষ